সহজ ও নিরাপদ কিছু ব্যায়াম এবং তার স্বাস্থ্য উপকারিতা

আমাদের সুস্থ থাকার দুটি বিষয় অবশ্যই মেনে চলতে হবে। প্রথমটি হলো পুষ্টিকর সুষম খাবার খাওয়া আর অন্যটি হলো নিয়মিত সহজ নিরাপদ ব্যায়াম করা। অনেকে লোক স্বাস্থ্যকর এবং পুষ্টিগুণসম্পন্ন খাবার খায় কিন্তু এর পাশাপাশি ব্যায়াম এর দিকে বিশেষ নজর দেয় না।

সুতরাং থাকো পুষ্টিকর খাবার খাওয়ার পাশাপাশি ব্যায়ামের দীর্ঘ বিশেষভাবে নজর দিতে হবে ব্যায়ামের প্রতি কোন অনীহা প্রকাশ করলে চলবে না সঠিকভাবে ব্যায়াম করা হলে অবশ্যই ভালো ফলাফল পাওয়া যাবে।

কিন্তু আমরা অনেকেই ব্যায়াম বিষয়ে বেশি ভাবনা বেঁধে থাকি যে মন আমরা মনে করি যে সবথেকে সহজ ও নিরাপদ ব্যায়াম কোনগুলো।এ নিয়ে আমরা অনেকেই চিন্তা করি এবং বিবাহ থাকে কোন ব্যায়াম করার সহজ এবং উপকার পাওয়া যাবে। সুতরাং আজ আমরা আপনাদের জানিয়ে দেবো যে সবথেকে সহজ এবং নিরাপদ ব্যায়ামগুলো কি।

সুতরাং আমাদের সকলের জানা উচিত যে সহজ এবং নিরাপদ ব্যায়ামগুলো কি যা দ্বারা আমরা অতি সহজেই ব্যায়াম করতে পারব। আমাদের জিমে যেতে হবে না অনেকে মানুষ জিম নিয়ে চিন্তা করেব্যায়াম করতে হলে জিমে যেতে হবে। কিন্তু জিমে যাওয়ার দরকার নেই কিন্তু অনেক লোকই ব্যায়াম করতে হলে তো জিমে যেতে হবে। জিমে যাওয়ার জন্য টাকার প্রয়োজন এবং সময় প্রয়োজন যা অনেক মানষের হয় তোবা আর্থিকভাবে কিংবা সময়ের অভাবে যেতে পারেনা।

সহজ ও নিরাপদ কিছু ব্যায়াম এবং তার স্বাস্থ্য উপকারিতা

তাই তাদের ব্যায়াম করা হয় না সুতরাং তাদের উদ্দেশ্যে তারা যদি জিমেনা যেতে চাই অথবা জিমে গিয়ে ব্যায়াম করবে এ ধরনের সময় তার নেই। সুতরাং তাদের জন্য খুবই একটি গুরুত্বপূর্ণ কথা হলো যে তারাও চাইলে বাসায় বসে সবথেকে সহজ এবং নিরাপদ ব্যায়ামগুলো করতে পারবে।

সুতরাং এ ধরনের ব্যায়াম করেও তারা সুস্থ এবং রোগ মুক্ত থাকতে পারবে। চলুন আমরা জেনে নেবো যে আমাদের শরীরের জন্য ব্যায়াম কতটা গুরুত্বপূর্ণ।এবং ব্যায়াম দ্বারা কতটা উপকার পাওয়া যায়। আজ আমরা জেনে নেবো যে সব থেকে সহজ এবং নিরাপদ গুলো কি এবং কোন ধরনের ব্যায়াম করা হলে আমাদের শরীর এবং স্বাস্থ্য ভালো থাকবে ।

তো হ্যাঁ ভালো থাকতেই হবে কারণ খুবই উপকারী সুতরাং নিয়মিত ব্যায়াম করা হলে অবশ্যই বিভিন্ন ধরনের রোগ প্রতিরোধ করতে হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যায় প্রতিরোধ ক্ষমতা বেড়ে যায়। যেমন ডায়াবেটিস ব্লাড প্রেসার এর সমস্যা থেকে রক্ষা পাওয়া যায় এ ধরনের রোগের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করে।

খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি কথা না বললেই নয় বরং এ কথা আপনার আমার সবার মানা উচিত যে ব্যায়ামের আগে অবশ্যই আমাদের শরীরকে প্রস্তুত রাখতে হবে। আমরা যদি আমাদের শরীরকে প্রস্তুত না করে ব্যায়াম শুরু করি তাহলে আমরা ব্যায়ামের উপকারপাওয়া যাবে না ।

তবে উপকার এর পরিবর্তে আমাদের শরীরে বরং আরো ক্ষতি হবে। তাই আমাদের উচিত অবশ্যই ব্যায়ামের আগে আমাদের শরীরকে প্রস্তুত করা যাতে করে ব্যায়ামের উপকার পাওয়া যায় ।আমাদের শরীরের ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা কম থাকে ।সুতরাং ব্যায়ামের আগে অবশ্যই শরীরকে প্রস্তুত করে নেওয়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি কাজ।

শরীরকে প্রস্তুত করে নেওয়া হলে আমরা আমাদের শরীরের জন্য সবথেকে সহজ ও নিরাপদ ব্যায়ামগুলো করতে পারব আর এ ধরনের ব্যায়াম করা হলে আমাদের শরীরকে রোগমুক্ত ফিট এবং সুস্থ তাই আমাদের সবার উচিত আগে শরীরকে প্রস্তুত করা করে ব্যায়াম শুরু করা।

ব্যায়ামের আগে অবশ্যই আমাদের যে কাজ করতে হবে। আমাদের এমন ব্যায়াম গুলো বেছে নিতে হবে। যে মন খুবই সহজ এবং নিরাপদ ব্যায়াম এগুলো আমরা নির্ধারণ করি এরপর ব্যায়াম শুরু করি তাহলে আমাদের শরীর গরম কোন ক্ষতি হবে না উপকার হবে।

তাই প্রথম যে কাজটি হবে তা হল একটি রুটিন তৈরি করা আমাদের প্রথম রুটিন তৈরি করতে হবে যে সবথেকে সহজ ও নিরাপদ ব্যায়াম কোনগুলো আমাদের গ্রাম সম্পর্কে জানতে হবে। এরপর ব্যায়াম শুরু করতে হবে।

সুতরাং রুটিন আমি রুটিনের কথা এ কারণে বললাম যে আমরা যদি ব্যায়াম করব বলে মনে করে থাকি তাহলে আমাদের সবার উচিত নিয়মিত একটি ব্যায়াম এর রুটিন তৈরি করা কারণ ব্যায়ামের রুটিন তৈরি করা হলে রুটিন অনুযায়ী আমরা ব্যায়াম শুরু করতে পারব।

রুটিন করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ কারণ রুটিন করা হলে আমাদের জানা হবে যে সব থেকে সহজ ও নিরাপদ ব্যায়াম কোনগুলো যা আমাদের শরীরের জন্য ভীষণ উপকারী। এবং ভালো রাখুন শরীরের ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা থাকে না এই ব্যাংকগুলোর ভেতরে।

তাই আমরা যদি অবশ্যই ব্যায়ামের আগে একটি রুটিন অথবা ব্যায়ামের তালিকা তৈরি করে সে অনুযায়ী আমরা নিয়মিত ব্যায়াম করতে পারব। এবং ব্যায়ামের উপকারিতা ও পাবো তাই একটি রুটিন তৈরি করলে আমাদের মনে না থাকলে আমরা যদি রুটিনটা একটা তালিকা অনুযায়ী আমরা আমাদের বেডরুমে অথবা যে যা ইচ্ছা ব্যায়ামের রুটিনটা ঝুলিয়ে রাখে তাহলে সচারাচার আমাদের চোখে পড়বে।

এবং ব্যায়াম করার আগ্রহ বেড়ে যাবে। সুতরাং অবশ্যই আমাদের উচিত ব্যায়ামের আগে একটি রুটিন তৈরি করে নেওয়া এবং রুটিনে আমাদের লেখা উচিত যে সব থেকে সহজ ও নিরাপদ ব্যায়াম কোন গুলো যার মাধ্যমে আমরা ও খুব উপকার পাব।এবং করতে খুবই সহজ এবং যে ব্যায়াম করার মাধ্যমে কোনো রকমের ব্যায়ামের যন্ত্র অথবা ব্যায়ামের সরঞ্জাম যেতে হবে না ।

অতি সহজেই যেকোন স্থানে বসে আমরা ব্যায়ামগুলো করতে পারবো।সুতরাং তাই আমাদের উচিত অবশ্যই ব্যায়ামের রুটিন তৈরি করা এবং রুটিন অনুযায়ী ব্যায়াম করা। এবং বিস্তারিত তথ্য আমরা করব কখন করব এবং পরে কি করব ব্যায়ামের আগে সবকিছু জেনে বুঝে এরপর ব্যায়াম করা হলে অবশ্যই ব্যায়ামের ফল পাওয়া যাবে।

এবার চলুন জেনে নেই কোন ব্যায়াম আপনার আমার সবার সহজ এবং নিরাপদ ব্যায়াম কোনগুলো এখন আর কথা না বাড়িয়ে চলুন জেনে নেই নিচে একটু কষ্ট করে নিচের দিকে পড়ার চেষ্টা করুন দেখে নিন আপনার শরীরের জন্য সবথেকে ভালো এবং সহজ ব্যায়াম গুলো।

যে ব্যায়াম করার জন্য ব্যায়ামের যন্ত্র প্রয়োজন পড়বে না। আপনি অতি সহজেই ব্যায়াম করতে পারবেন এবং এ ব্যায়াম করার ফলে শরীর থাকবে শুল্কমুক্ত ব্যায়াম করার জন্য আপনি অতিরিক্ত ওজন ঝরাতে পারবেন।এবং শরীর ফিট এবং আকর্ষণীয় করবেন মেদ ঝরে যাবে।

শরীরের ক্লান্তি দূর হয়ে যাবে। স্মৃতিশক্তির উন্নতি ঘটবে ব্লাড প্রেসার নিয়ন্ত্রণে থাকবে সমস্যা দূর হয়ে যাবে।এবং পাকস্থলী সুস্থ রাখবে হজম শক্তি বৃদ্ধি করবে মাথা ব্যথা দূর করবে শরীরের ক্লান্তি দূর করতে সাহায্য করবে। ব্যায়াম ভিতরে যত উপকারিতা পাওয়া যাবে।

এই সহজ ও নিরাপদ চলুন আজ থেকে আমরা শুরু করে এ ধরনের ব্যায়াম যারা এ ধরনের উপকার পাওয়া যাবে। শরীর অসুস্থ যাতে করে আমরা সুস্থভাবে বাঁচার আনন্দটা খুঁজে পাবো ব্যায়ামের ভেতর থেকে। আর ব্যায়াম একমাত্র সুস্থভাবে মানুষকে বাঁচাতে পারে তাই নিয়মিত সবার উচিত ব্যায়াম করা।

পুষ্টিকর গুণসম্পন্ন খাবার খেলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বেড়ে যায়।শরীরকে সুস্থ এর কোন বিকল্প নাই সুস্থ থাকার জন্য কেবলমাত্র খেলেই হবে না খাওয়ার পাশাপাশি ব্যায়াম করতে হবে। আর শুধু ব্যায়াম করলেই হবে না ব্যায়ামের পাশাপাশি পুষ্টিগুণ খাবার খেতে হবে। দুটোই আমাদের শরীরের বিশেষ ভূমিকা পালন করে পুষ্টিকর খাবার খেতে হবে।এবং নিয়মিত চালিয়ে যেতে হবে ব্যক্তি করতে পারবে সেই থাকতে পারবে সুস্থ এবং রোগমুক্ত যেতে পারবে না এবং কোন রোগে আক্রান্ত করতে পারবে না।

হাঁটার উপকারিতা

হাঁটার উপকারিতা সম্পর্কে আমরা কমবেশি প্রায় লোকই জানে সুতরাং হাঁটার উপকারিতা সম্পর্কে আমাদের আরো অনেক কিছু জানার বাকি রয়েছে।আজকে আমরা জেনে নেবো হাঁটার মাধ্যমে কোন ধরনের উপকার পাওয়া যায় সব ধরনের উপকারের কথা আমাদের সবার জানা নাও থাকতে পারে।

এবং হাঁটাহাঁটি করা এটা ছোট করে দেখলে চলবে না হাঁটাহাঁটি করা একটি ব্যায়াম সবথেকে সহজ ও নিরাপদ দামের ভিতরে এটাও একটি সহজ ব্যায়াম হাঁটাহাঁটি করা। আমরা অনেকেই মনে করি আমরা তো হাঁটাহাঁটি করি কিন্তু এরকম থাকলে চলবে না।

আপনাকে যে নিয়মে নিয়মিত হাঁটতে হবে। তাহলো প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে ওঠার চেষ্টা করবেন একটু তাড়াতাড়ি কারণ আপনি ব্যায়াম শুরু করার আগে একটি রুটিন তৈরি করবেন যে আপনি কখন ঘুম থেকে উঠবেন।

কখন ব্যায়াম করবেন কখন খাবার খাবেন কখন ঘুরতে যাবেন কখন পড়াশোনা করবেন কখন চাকরি করবেন সমস্ত বিষয় এবং সব ব্যক্তির ব্যায়ামের আগে একটি রুটিন তৈরি করে নেওয়া ভালো। কারণ রুটিন অনুযায়ী কাজ করলে কখনোই কোন কাজ ভুল হবেনা বরং অতি সহজে ব্যায়াম করা যাবে সকল ধরণের কাজও করা যাবে।

কোন রকমের কাজের ভুল হওয়ার আশঙ্কা থাকবে না কাজের প্রতি অনীহা প্রকাশ করবে না। এবং খুবই সুন্দরভাবে সব কাজ গুলো সাজিয়ে গুছিয়ে করতে পারবে মনোযোগ সহকারে তাই অবশ্যই আপনাকে ব্যায়ামের ক্ষেত্রে বা কাজের ক্ষেত্রে যেটাই হোক মনোযোগটা সবথেকে গুরুত্ব আপনি যদি মনোযোগ সহকারে কাজ করেন তাহলে আপনার কোন কাজ ভুল হবেনা।

তাই যে কোন কাজ করার আগে কাজ কে ভালবাসুন এরপরে কাজ করুন যে কাউকে ভালোবাসা যায়।ওই কাজ করার সময় ভুল এবং হয়না আপনি যতটা কাকে ভালবাসবে সে আপনাকে ততটাই ভালবাসবে আপনি যত মনোযোগ সহকারে ভালোবেসে ব্যায়াম করবেন।দেখতে পারবেন আপনাকে ঠিক ততটাই ভালবাসবে কারণ আপনি যতটা সুন্দর এবং স্থিরভাবে ব্যায়াম ভালোবেসে নিয়মিত ব্যায়াম করে যাবেন।

তাহলে দেখতে পারবেন যে আপনাকে ঠিক আপনার ভালবাসার মূল্য দেবে। এবং ততটাই আপনার ভালোবাসা ফিরিয়ে দেবে। কারণ ব্যায়ামের আপনাকে যে জিনিসটা দেবে শরীর সুস্থ এবং রোগমুক্ত ফিট রাখতে সাহায্য করবে।এবং সহজে আপনার দেহে কোন রোগ প্রবেশ করতে পারবে না।ব্যায়াম আপনার একমাত্র বন্ধু সুতরাং কে আপনি বন্ধু মনে করে আপনজনের কাছে নেন দেখতে পারবেন আপনার কতটা উপকার করে আপনার শরীরের জন্য।

নিয়মিত সকালে যদি একটু ঘুম থেকে ওঠার চেষ্টা করেন।এরপর বাহিরের মুক্ত বাতাসে প্রকৃতির মাঝে একটু সকালে 30 মিনিটের মত হাঁটাহাঁটি করেন তাহলে দেখতে পারবেন আপনার শরীর কতজন করে এবং হালকা লাগছে মনে শান্তি ফিরে আসবে এমন থাকবে সতেজ এবং ভালো।

এরপর বিকালে বিকালে আবহাওয়া চারদিক ফুরফুরে বাতাস এবং খুবই সুন্দর একটি পরিবেশ তখনও আপনি 30 মিনিটের মত ফেটে যাবেন সকাল-বিকাল 30 মিনিট করে যদি আপনি নিয়মিত এক ঘন্টা হাগেন তাহলে এর উপকারিতা।

অনেক বেশি পাওয়া যাবে তার হাঁটার মাধ্যমে যে কতটা উপকার পাওয়া যায় কেবলমাত্র যে ব্যক্তি নিয়মিত হাটে সেই বলতে পারবে সুতরাং আপনার আমার সবার উচিত নিয়মিত হাঁটার মাধ্যমে যে উপকার পাওয়া যায়। অতিরিক্ত ওজন কমাতে পারবেন এবং পেটের ভুড়ি অর্থাৎ পেটের মেদ অতি সহজেই ঝরে যাবে ।নিয়মিত হাঁটাহাঁটি করলে ব্লাড প্রেসার নিয়ন্ত্রণে থাকবে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে থাকবে এবং আরও বিভিন্ন ধরনের সমস্যার হাত থেকে রক্ষা করবেন নিয়মিত হাঁটা ব্যায়াম আপনার।

সাঁতার কাটার উপকারিতা

সাঁতার কাটার উপকারিতা অপরিসীম নিয়মিত আপনি যদি সাঁতার কাটেন তাহলে আপনার শরীর থাকবে সুস্থতার কাটাও একধরণের ব্যায়াম সুতরাং নিয়মিত সাঁতার কাটুন। সাঁতার কাটা এটাও একটি ব্যায়াম যা দ্বারা আপনার ফুসফুসশক্তিশালী হতে ভীষণ ভাবে সাহায্য করবে এবং বিভিন্ন ধরনের ব্যথা হাঁটুর ব্যথা এবং কোমরের ব্যথা দূর করতে সাঁতার কাটার জুড়ি নেই।

আপনি যেকোন বয়সের সাঁতার কাটতে পারেন সাঁতার কাটা। যেমন আনন্দ দেয় তেমনি ভাবে আপনার শরীরের উপকার করে।সুতরাং নিয়মিত আপনি যদি একটু সাতার কাটার চেষ্টা করেন তাহলে আপনার সরে থাকতে রোগমুক্ত এবং বিভিন্ন ধরনের সমস্যার হাত থেকে এবং রোগের হাত থেকে আপনাকে রক্ষা করবে। সবথেকে সহজ এবং নিরাপদ ব্যায়াম গুলো সাঁতার কাটা একটি ব্যায়াম তাই সাঁতার কাটা নিয়মিত করুন এটা আপনার শরীরকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করবে।

যোগ ব্যায়ামের উপকারিতা

যোগব্যায়াম খুবই উপকারী একটি আমাদের বিভিন্ন ধরনের রোগের হাত থেকে রক্ষা করতে সাহায্য করে যোগ ব্যায়ামের রয়েছে হাজারো উপকারিতা। নিয়মিত যোগ ব্যায়াম আমাদের রক্ত সঞ্চালনের ক্ষমতা বাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করে।

হজম শক্তির উন্নতি করে কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে মাথা ব্যথা দূর করে। শরীরের ক্লান্তি দূর করে।হাটুর ব্যাথা বাতের ব্যথা যেকোনো ধরনের শরীরের ব্যথা শরীরের ক্লান্তি শরীরে শক্তি যোগায়। হাতের পেশি উন্নত করে কিডনি সুস্থ রাখে।সকল সমস্যার সমাধান পাওয়া যায়।একমাত্র যোগ ব্যায়াম যোগ ব্যায়ামের কোনো বিকল্প নেই বললেই চলে ।

এটা খুবই একটি ভালো ব্যায়াম আমাদের শরীরের জন্য সবথেকে সেরা বাম হলো যোগব্যায়াম সবার সেরা তার নাম যোগ ব্যায়াম যোগব্যায়াম।শুধু আমাদের শরীর সুস্থ রাখেনা বড় আমাদের মানসিকভাবে সুস্থ রাখতে ভীষণ ভাবে সাহায্য করে। যোগ ব্যায়ামের আসল অর্থ শুধু যোগব্যায়াম না এর অর্থ চেতনা।

ওজন কমানোর জন্য যোগব্যায়াম খুবই কার্যকরী। ব্যায়াম ও যারা ওজন কমাতে চায় তারা করতে পারেন নিয়মিত যোগ ব্যায়াম অথবা নিয়মিত যোগ যোগ ব্যায়ামের আসন যোগ ব্যায়ামের আসন এর উপকারিতা শেষ নেই যোগ ব্যায়ামের আসন এর উপকারিতা বলে শেষ করা যাবেনা।যযোগ ব্যায়াম হলো সবথেকে ভালো মানুষ চাইলে যেকোন স্থান এবং যেকোনো জায়গায় বসেই যোগ ব্যায়ামের অভ্যাস করতে পারে।

এছাড়াও যোগব্যায়াম আমাদের শারীরিক এবং মানসিক ভারসাম্য বজায় রাখতে বিশেষ ভাবে সাহায্য করে।এছাড়াও যোগব্যায়াম আমাদের শরীরে জমে থাকা বিষ (টক্সিন) দূর করতে যোগব্যায়াম বিশেষভাবে সাহায্য করে। আমরা এতক্ষন আলোচনা করেছি সব থেকে সহজ এবং নিরাপদ ব্যায়াম গুলো সব থেকে সহজ এবং নিরাপদ ব্যায়ামগুলোর মধ্যে একটি হলো যোগব্যায়াম।

Read more… দুশ্চিন্তা আপনার জীবনে কতখানি ক্ষতি বয়ে আনতে পারে

সহজ এবং নিরাপদ তেমনিভাবে এর উপকারিতা রয়েছে। সবথেকে বেশি আমাদেরই অনেকেরই যোগব্যায়াম বিষয়ে কমবেশি জানা আছে সুতরাং যোগব্যায়াম যে আমাদের শরীরের জন্য কতটা উপকারী। উপকার সম্পর্কে আলোচনা করে শেষ করা যাবেনা এককথায় রক্তচাপ দূর করতে যোগাসন খুবই গুরুত্বপূর্ণ ।

যাদের রক্ত চাপ আছে তারা যদি নিয়মিত যোগাসন করে তাহলে তাদের রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকবে ।এছাড়াও অনেক নারী পিরিয়ডের সময় ব্যাথা হয়ে থাকে। আর এ ধরনের ব্যথা দূর করার জন্য যোগব্যায়াম খুবই উপকারী।

এবং খুবই গুরুত্বপূর্ণ তাই অতি সহজেই মেয়েরা পিরিওড এর ব্যথা কমাতে পারে যোগ ব্যায়ামের মাধ্যমে। তাই নিয়মিত যোগ ব্যায়াম করুন তাহলে অবশ্যই আপনাদের অর্থাৎ মেয়েদের পিরিয়ডের ব্যথা দূর হয়ে যাবে।এবং নিয়মিত প্রতি মাসে পিরিয়ড হবে এছাড়া মেয়েদের ডিম্বাশয় ভালো থাকতে ভীষণ ভাবে সাহায্য করবে সুতরাং নিয়মিত করতে পারেন যোগব্যায়াম।

খেলাধুলার উপকারিতা

খেলাধুলা করে মানুষ শুধু আনন্দ পায় না বরং মানুষের শরীরের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।এবং যারা খেলাধুলা করতে ভালোবাসেন তাদের উচিত খেলার উপকারিতা।সম্পর্কে জানা খেলাধুলা আপনার শরীরের ব্যায়াম এর মত কাজ করে আপনার শরীরে ব্যায়ামের উপকারিতা। সুতরাং যারা ব্যাডমিন্টন খেলতে ভালোবাসেন।

অথবা ক্রিকেট যে যার পছন্দ মতো খেলাধুলা করতে ভালোবাসেন তাহলে নেমে যান খেলাধুলার উদ্দেশ্যে খেলাধুলা আপনার মন মেজাজ ভালো রাখতে সাহায্য করবে।তেমনি ভাবে আপনার শরীরের উপকার করতে সাহায্য করবে।

খেলাধুলা এটাও এক ধরনের ব্যায়াম সুতরাং সব থেকে সহজ এবং নিরাপদ ব্যায়ামগুলোর ভেতরেও খেলাধুলা একটি ব্যায়াম তাই যারা খেলাধুলা করতে ভালোবাসেন। অথবা পছন্দ করেন তারাও আপনাদের পছন্দের খেলা দুলা করতে পারেন।খেলাধুলার মাধ্যমে আপনার শরীরকে সুস্থ এবং রোগমুক্ত আপনি মানসিকভাবে সুস্থ থাকতে পারবেন।

Leave a Comment